৫ কার্তিক ১৪২৪, শনিবার ২১ অক্টোবর ২০১৭ , ৩:২৪ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বজিৎ হত্যায় দু’জনের ফাঁসি, যাবজ্জীবন ১৫


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক আপডেট: ০৬ আগস্ট ২০১৭ রবিবার
বিশ্বজিৎ হত্যায় দু’জনের ফাঁসি, যাবজ্জীবন ১৫

রাজধানীর পুরান ঢাকার বহুল আলোচিত দর্জি দোকানি বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলায় দুই জনের ফাঁসি ও ১৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে খালাস দেয়া হয় চার জনকে। এছাড়া রায়ে সঠিক রিপোর্ট না দেয়ায় ডাক্তার ও পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রোববার বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেন।

এর আগে গত ১৭ জুলাই এক শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য ৬ আগস্ট দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

গত ১৬ মে বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি শুরু হয়। চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি বিশ্বজিৎ হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের করা আপিল শুনানির জন্য পেপারবুক প্রস্তুত হয়।

পরে ২৬ ফেব্রুয়ারি ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের করা আপিল অগ্রাধিকার ভিত্তিতে শুনানির জন্য বেঞ্চ নির্ধারণ করে দেন প্রধান বিচারপতি।

২০১৩ সালের ১৮ ডিসেম্বর বহুল আলোচিত এ হত্যা মামলায় ৮ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। এ মামলায় ২১ আসামির মধ্যে আটজন কারাগারে এবং বাকিরা পলাতক রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ৯ ডিসেম্বর বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের অবরোধ কর্মসূচি চলাকালে রাজধানীর পুরান ঢাকার ভিক্টোরিয়া পার্কের সামনে নির্মম খুনের শিকার হন দর্জি দোকানি বিশ্বজিৎ দাস।

হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সবাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কর্মী ছিলেন বলে বিভিন্ন প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। পুরান ঢাকার শাঁখারীবাজারে বিশ্বজিতের দর্জি দোকান ছিল। তিনি থাকতেন লক্ষ্মীবাজার। গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর।

গো নিউজ২৪/পিআর