২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৩:২০ অপরাহ্ণ

বিএনপির হ-য-ব-র-ল অবস্থা


গো নিউজ২৪ | জেলা প্রতিনিধি আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার
বিএনপির হ-য-ব-র-ল অবস্থা

নড়াইল: নড়াইলে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির হ-য-ব-র-ল অবস্থা বিরাজ করছে। সভাপতি থাকেন ঢাকায় আর সাধারণ সম্পাদক জেলায় থাকলেও দলীয় কোনো কর্মসূচি পালিত হয় না। দলীয় কর্মকাণ্ড না থাকায় ঝিমিয়ে পড়েছে বিএনপি। কেন্দ্র ঘোষিত কোনো কর্মসূচিও পালিত হয় না। দ্রুত নতুন কমিটি গঠনের দাবি তাদের।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জেলা বিএনপির সর্বশেষ কমিটি গঠন করা হয় ২০০৯ সালে।  এসময় দুই বছরের জন্য বিশ্বাস জাহঙ্গীর আলমকে সভাপতি এবং আব্দুল কাদের শিকদারকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি গঠন করা হয়।  তবে গত ৭ বছর ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ এই কমিটি দিয়ে চলছে স্থানীয় বিএনপি। বিভিন্ন সময়ে আন্দোলন সংগ্রাম করতে গিয়ে দলীয় নেতা-কর্মীরা মামলায় জড়িয়ে পলাতক জীবনযাপন করতে থাকেন। দলীয় কর্মসূচি পালিত না হওয়ায় ধিরে ধিরে নেতা-কর্মীরা সংগঠন থেকে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। 

জেলা বিএনপির সভাপতি বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম একজন ব্যবসায়ী। তিনি কমিটি গঠনের পূর্ব থেকেই ঢাকায় বসবাস করেন।  অর্থের জোরেই তিনি সভাপতি হয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। দীর্ঘদিন তিনি দলীয় কোনো কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেন না বলে নেতা-কর্মীদের অভিযোগ। মূল সংগঠনের সভাপতি ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করায় এবং জেলায় অবস্থান না করায় দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে তেমন যোগাযোগ নেই বলে দলের একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান। 

তবে জেলা সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল কাদের সিকদার নিজ জেলাতেই থাকেন।  কিন্তু মামলার জালে বন্দী হয়ে কারা বরণ শেষে বর্তমানে জামিনে আছেন। তিনিই জেলায় অবস্থান করে দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখেন। 

এদিকে দলীয় কর্মকাণ্ড না থাকায় নেতা-কর্মীরা ঝিমিয়ে পড়েছে। জরুরি ভিত্তিতে নতুন কমিটি গঠন করা না হলে সরকার বিরোধী আন্দোলন সম্ভব নয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। কেন্দ্র থেকে সরকার বিরোধী আন্দোলন জোরদার করার লক্ষে নতুন কমিটি গঠন করা হবে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে। জেলার অধিকাংশ নেতাই বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সভাপতি-সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ার জন্য যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহারিয়ার রিজভী জজ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রার্থী জানিয়ে জানান, দ্রুতই জেলা বিএনপির কমিটি গঠন হবে।

সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হলেও দলীয় ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

১নং যুগ্ম-সম্পাদক ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আলী হাসান বলেন, ‘সাধারণ সম্পাদক দীর্ঘদিন কারাগারে থাকা অবস্থায় আমি যতদিন দায়িত্ব পালন করেছি ততদিন কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বর্তমান এনালগ কমিটি দিয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলন সম্ভব নয়। আন্দোলন সংগ্রামের জন্য সাবেক ছাত্রনেতাদের দিয়ে দ্রুত কমিটি গঠনের জোর দাবি জানাচ্ছি।’

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল কাদের শিকদার বলেন, ‘নতুন কমিটির বিষয়ে আমার তেমন কিছু জানা নেই।’

জেলা বিএনপির সভাপতি বিশ্বাস জাহঙ্গীর আলম বলেন, ‘জেলা বিএনপির কমিটি কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হতে পারে। কেন্দ্রীয় নেতারা যদি মনে করে আমাকে সভাপতি করা প্রয়োজন তাহলে রাখবে আর না মনে করলে রাখবে না।  তারা যে সিদ্ধান্ত নেবে তাই মেনে নেব। ব্যবসায়ীক কারণে ঢাকায় অবস্থান করলেও দলীয় নেতা-কর্মীদের খোঁজখবর রাখি।’

গোনিউজ/এমবি