৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

বিএনপির সমাবেশ ঘিরে সড়ক, নৌ ও রেলপথ বন্ধের অভিযোগ


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৭ রবিবার
বিএনপির সমাবেশ ঘিরে সড়ক, নৌ ও রেলপথ বন্ধের অভিযোগ

জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে আজ দুপুরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ডিএমপি ২৩ শর্তে বিএনপিকে এ সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে।

এদিকে বিএনপি অভিযোগ করেছে, তাদের সমাবেশে জনসমাগম ঠেকাতে পুলিশসহ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বাস চলতে দিচ্ছে না। একইসাথে রেল পথে চরছে সিডিউল বিপর্যয়। লঞ্চ চলাচলেও বাঁধার খবর পাওয়া গেছে।

কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই রাজধানীর আশেপাশের জেলা মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর থেকে ঢাকামুখী সব গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। রবিবার (১২ নভেম্বর) সকাল থেকে এই গণপরিবহণগুলো বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তি পড়েছে রাজধানীমুখী মানুষ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পরিবহণ শ্রমিক নেতা বলেন, বিএনপির সোহরাওয়ার্দীর সমাবেশের কারণেই অঘোষিতভাবে গণপরিবহণ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কোনো উপায় না পেয়ে দুর্ভোগকে সঙ্গী করেই কেউ কেউ সিএনজি অটোরিকশা- এমনকি রিকশায় করে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও ঢাকায় আসছেন।

নারায়ণগঞ্জে প্রায় সব ধরনের সড়ক পরিবহন বন্ধ রয়েছে। এছাড়াও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ট্রেন চলাচল করলেও নির্ধারিত সময়ে কোনো ট্রেন না ছাড়াছে না। যার কারণে রেলপথে শিডিওল বিপর্যয় দেখা দিয়েছে।

রবিবার সকাল থেকেই নারায়ণগঞ্জে এমন দৃশ্য দেখা যায়। নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ফাঁকা থাকায় কার্যত হরতালের আবহ তৈরি হয়েছে।

ট্রাফিক পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, দেখতে পাচ্ছি বাস চলছে না। তবে এর কারণ আমার জানা নেই। হয়তো কিছুক্ষণ পর থেকে চলতে পারে।

জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব বলেন, সমাবেশে দলের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ ঢাকামুখী হবে এসেই ভয়েই সরকার আগেই সব পরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে।  

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট এলাকার বাসস্ট্যান্ড থেকে রবিবার (১২ নভেম্বর) সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। 

গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তায় ঢাকাগামী স্বপন বলেন, “সকাল থেকে ঢাকার দিকে কোনো গাড়ি যেতে দিচ্ছে না পুলিশ।”

গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন বলেন, “ঢাকা থেকে অনত্র চলতে দেওয়া হলেও ঢাকার দিকে কোনো গাড়ি চলতে দেওয়া হচ্ছে না।

গাজীপুর ট্রাফিক বিভাগের এএসপি সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, তারা কোনো গাড়ি ঢাকার দিকে যেতে বাধা দিচ্ছেন না।

গো নিউজ২৪/এবি