২ পৌষ ১৪২৪, রবিবার ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৬:৩০ পূর্বাহ্ণ

বাঘা পৌর নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার
বাঘা পৌর নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

রাজশাহী: আগামী ২৮ ডিসেম্বর রাজশাহীর বাঘা পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি থেকে ২ জন ,কাউন্সিলর পদে ৫৩ জন এবং  সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৮ জন প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর (নারী-পুরুষ) প্রার্থীরা তাদের নিজ-নিজ কর্মীদের সাথে করে উপজেলা নির্বাচন অফিসে আসেন। এরপর কাঙ্ক্ষিত প্রতীক পেতে অধিকাংশ ওয়ার্ডে চলে লটারি। এদিক থেকে যারা লটারিতে জয়ী হয়েছেন তারা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছেন।

সর্বশেষ দুপুর ১টার সময় আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আক্কাস আলীর পক্ষে তার একান্ত সহকারী ও  নির্বাচনী প্রস্তাবক সাইফুল ইসলাম রবি উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে নৌকা প্রতীক সংগ্রহ করেন। এর আগে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির দলীয় প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক তার দলীয় কর্মী বাহিনীদের সাথে করে ধানের শীর্ষ প্রতীক সংগ্রহ করেন। 

এবারের নির্বাচনে যে সমস্ত প্রতীক বরাদ্দ রয়েছে তার মধ্যে- পানির বোতল, টেবিল ল্যাম্প, উট পাখি, ডালিম, ব্রিজ, গাজর, জবা ফুল, চশমা, আনারস বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। তবে বেশি লটারি হয়েছে উট পাখি, আনরস এবং চশমা প্রতীক নিয়ে। 

সব মিলে এই মুহূর্তে সংরক্ষিত আসন (নারী) কাউন্সিলর পদে ১৮ জনের মধ্যে- ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৮ জন ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন। এছাড়াও সাধারণ আসন (পুরুষ) কাউন্সিলর পদে ৫৩ জনের মধ্যে- ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৮ জন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৮ জন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ১০ জন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ৭ জন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ২ জন ও  ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন রয়েছেন। এর মধ্যে সীমানা বাড়ানোর কারণে দু’জন দায়িত্বপ্রাপ্ত (চলমান) কাউন্সিলর ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভোট যুদ্ধে নেমেছেন। 

উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মজিবুল ইসলাম জানান, এখানে আগামী ২৮ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৭ হাজার ৭৮৯। এরমধ্যে পরুষ ভোটার ১৪ হাজার ১৭ ও নারী ভোটার ১৩ হাজার ৭৭২ জন। 

গোনিউজ/এমবি