১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, সোমবার ২৯ মে ২০১৭ , ১১:২০ অপরাহ্ণ

প্যান্ট গুটিয়ে নামাজ পড়া কি জায়েজ?


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক আপডেট: ০১ মে ২০১৭ সোমবার
প্যান্ট গুটিয়ে নামাজ পড়া কি জায়েজ?

যারা অফিসে কাজ করেন বা কোথাও ঘুরতে যান তারা সাধারণত প্যান্ট পড়ে থাকেন। এমতাবস্থায় সবাই প্যান্ট গুটিয়েই নামাজ আদায় করে নেন। কিন্তু এভাবে কি নামাজ হবে? 

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।

আপনার জিজ্ঞাসার ৪৯৯তম পর্বে ছেলেরা প্যান্ট টাকনুর ওপরে রেখে নামাজ আদায় করলে নামাজ হবে কি না, সে সম্পর্কে টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দর্শক। 

প্রশ্ন : আমরা যাঁরা অফিস-আদালতে নামাজ পড়ি, প্যান্ট পরে টাকনুর ওপরেই কাপড় রেখে আমরা নামাজ পড়ি। কিন্তু প্যান্ট গুটিয়ে নামাজ পড়ি। আমি শুনেছি, এভাবে প্যান্ট গুটিয়ে রেখে নাকি নামাজ পড়া যাবে না। এটি কতখানি সহিহ?

উত্তর : প্যান্ট গুটিয়ে রাখার বিধানটা শুধু নামাজের জন্য নয়। টাকনুর ওপরে প্যান্ট পরা এটি সব সময়ের বিধান। সুতরাং এই কাজটি যদি কেউ করে থাকেন, তাহলে এটা ভুল কাজ করছেন।

আর সহিহ বুখারির মধ্যে এসছে, রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘সালাতের মধ্যে যদি কেউ কাপড় গুটান, তাহলে এই কাজ তাঁর জন্য মাকরুহ, অপছন্দনীয়, এটি জায়েজ নেই।’ অর্থাৎ, সালাতের মধ্যে কাপড় গুটানোর কাজটি জায়েজ নেই। কিন্তু সালাতের আগে অথবা পরে যদি কেউ কাপড় গুটান, তাহলে এটা মাকরুহ হবে না, এটা তাঁর জন্য জায়েজ রয়েছে, তিনি করতে পারেন।

যদি কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে কাপড় টাকনুর নিচে পরেন, তাহলে সেটা অহংকার। এটা হারাম, এর জন্য সে জাহান্নামি হবে। এ বিষয়ে রাসূল (সা.)-এর স্পষ্ট হাদিস রয়েছে। আর যদি কেউ টাকনুর ওপরে পরে, কিন্তু কোনো কারণে নিচে নেমে যায়, তহালে সেটা অহংকার নয়, এর জন্য তিনি গুনাহগার হবেন না।

ভিডিওটি দেখুন-

 

গো নিউজ২৪/এএইচ