৯ চৈত্র ১৪২৩, বৃহস্পতিবার ২৩ মার্চ ২০১৭ , ৪:২৭ অপরাহ্ণ

নতুন ইসির অধীনে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে: কাদের


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১০ মার্চ ২০১৭ শুক্রবার
নতুন ইসির অধীনে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে: কাদের

নতুন গঠিত নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্র কেন্দ্রে (টিএসসি) আয়োজিত সূর্যসেন হলের ৫০ বছর পূর্তি উৎসবে তিনি বলেন, 'অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন— নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কি-না। আমি হলফ করে বলতে পারি নিরপেক্ষ এবং সুষ্ঠু নির্বাচন হবে।'

আগামী জাতীয় নির্বাচন সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'বিশ্বের প্রায় সব দেশেই নির্বাচনের দায়িত্বে থাকে ক্ষমতাসীন সরকার। শেখ হাসিনা যদি কোনো কারণে নির্বাচনে হেরেও যান, তবুও তিনি জনমতকে প্রবাহিত করবেন না।'

তিনি বলেন, 'এখন সন্ত্রাসবাদ আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। গত কয়েকদিনের ঘটনাই এর বড় প্রমাণ।'

মন্ত্রী বলেন, যারা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগকে ঠেকানোর জন্য উগ্রবাদকে আলিঙ্গন করছেন তারা শুধু দেশকে নয়, নিজেদের ভবিষ্যৎকেও সর্বনাশের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'আপনারা দেশকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেবেন না।'

শিক্ষকদের একটি আত্মমর্যাদাবোধ আছে— একথা উল্লেখ করে শিক্ষকদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, 'আপনার এখন আত্মমর্যাদাবোধ হারিয়ে ছাত্রনেতাদের তোষামোদ করছেন। তারা এখন কথায় কথায় কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দিচ্ছে। এটা তো শিক্ষা বিকাশের জন্য অনেক ক্ষতিকর। আপনারা শিক্ষকরা একটু আপনাদের আত্মসম্মানের প্রতি নজর দিন।'

নিজের ছাত্রজীবনের স্মৃতিচারণ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আমরা কোথাও গেলে বাস-ট্রেনে করে যেতাম। প্লেনে যাওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবিনি। আর এখনকার নেতাকর্মীরা ঢাকার আশেপাশের জেলাগুলোতে গেলেও প্লেনে করে যায়।'

বর্তমানে দেশে বিলবোর্ডের রাজনীতি বেড়ে গেছে— এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, আমি দেখেছি কোনো কোনো বিলবোর্ডে ৭০ থেকে ৮০ জনের ছবি। তাদের সবাই নেতা। কোনো কর্মী নেই। এখন আর কেউ কর্মী হতে চায় না। সবাই নেতা হতে চায়।'

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। অন্যদের মধ্যে সূর্যসেন হলের প্রভোস্ট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল উপস্থিত ছিলেন। 

গো নিউজ ২৪/ এস কে