১০ শ্রাবণ ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৫ জুলাই ২০১৭ , ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ

‘নকল করে ধরা পড়েছেন খালেদা’


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আপডেট: ১২ মে ২০১৭ শুক্রবার
‘নকল করে ধরা পড়েছেন খালেদা’

খালেদা জিয়া ভিশন-২০৩০ ঘোষণা করেছেন আর এই ভিশন ঘোষণা করতে গিয়ে তিনি আওয়ামী লীগের ভিশন ‘২১-৪১’ নকল করে ধরা খেয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। শেখ হাসিনার ভিশন ‘২১ ও ৪১’ উপলক্ষে এই আলোচনার আয়োজন করা হয়।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘পরীক্ষায় নকল করার জন্য ছাত্র-ছাত্রীরা ধরা পড়ে। আর আওয়ামী লীগের ভিশন নকল করার জন্য ধরা পড়েছেন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া। খালেদা জিয়ার ভিশন যে নকল, তার প্রমাণ সাড়ে আট বছর আগে আওয়ামী লীগ ভিশন-২০২১ এ। আমাদের ভিশনে তথ্য-প্রযুক্তিখাতকে প্রধান রপ্তানি খাত হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল। আর এখন খালেদা জিয়ার তার ভিশন- ৩০ এ তথ্য-প্রযুক্তিখাতকে প্রধান রপ্তানি খাত হিসেবে ঘোষণা করেছেন।’

সাবেক এই বনমন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার ভিশন-২০৩০ এ আরও অনেক কিছুর অনুকরণ করেছে যেগুলো ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ এর মধ্যে আছে। অর্থাৎ অন্যের কাছ থেকে ধার করা অনুকরণ করা ও নকল করা একটি ভিশন ২০৩০ খালেদা জিয়া ঘোষণা করেছে।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘২০১৩-১৪ সালে মানুষের ওপর পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে শতশত মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড় ঝলসে দেয়া হয়েছে হাজার হাজার মানুষকে। আর এই নৈরাজ্য সৃষ্টির জন্য তাদের দলের ওপরে সন্ত্রাসী দল হিসেবে যে তকমা লেগেছে, সেই তকমা থেকে বেরিয়ে আসার ব্যর্থ প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে খালেদা জিয়া ভিশন-২০৩০ ঘোষণা করেছে।’

বিএনপিকে উদ্দেশে করে হাছান মাহমুদ বলেন, কানাডার আদালতও আপনাদের সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তকমা দিয়েছে। বিশ্ব সমাজের কাছে জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও যুদ্ধাপরাধীদের লালন-পালনের যে তকমা আপনারা পেয়েছেন, যত চেষ্টাই করুন না কেন তা থেকে বেরোতে পারবেন না।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘খালেদা জিয়া যখন বলেন প্রধানমন্ত্রী ও অন্যদের সঙ্গে ভারসাম্য রক্ষার চেষ্টা করবেন, এতে মানুষ আতঙ্কিত হয়। আভাস পায় তিনি রাষ্ট্রপতি হতে চান এবং ছেলেকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে চান। সুতরাং মানুষকে এতে বোকা বানানোর চেষ্টা করবেন না। আসলে আপনাদের ভিশন হচ্ছে আবার ক্ষমতায় গিয়ে হাওয়া ভবন, খাওয়া ভবন প্রতিষ্ঠা করা।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে বাংলাদেশের মানুষকে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখিয়েছিল। আজকে ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ১৩ কোটি মানুষের হাতে ফোন আছে। রেজাল্টের জন্য শিক্ষার্থীদের আর লাইন ধরতে হয় না। মোবাইলে মেসেজ পাঠালে ফিরতি মেসেজে ফল পাওয়া যায়। এটাই ডিজিটাল। প্রধানমন্ত্রী দেখানো স্বপ্নের অনেকগুলো এরই মধ্যে পূরণ হয়েছে।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যদি আরও কয়েকবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকার সুযোগ দেয়া হয়, তাহলে ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে উঠবে।’

২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর সবুর।


গো নিউজ২৪/এএইচ