১০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১:২৭ অপরাহ্ণ

দুই মাস লন্ডনে থাকবেন খালেদা জিয়া


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক আপডেট: ১৫ জুলাই ২০১৭ শনিবার
দুই মাস লন্ডনে থাকবেন খালেদা জিয়া

প্রায় দুই মাসের লম্বা সফরে আজ লন্ডন যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অ্যামিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তিনি লন্ডনের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছেন চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার।বিএনপির সিনিয়র নেতারা এ সময় বিমাবন্দরে উপস্থিত থেকে বিদায় জানাবেন। 

সফরসঙ্গী হিসেবে ব্যক্তিগত সহকারী আবদুস সাত্তার, বিএনপির  তরুণ নেতা তাবিথ আউয়াল ও একজন গৃহকর্মী রয়েছেন তার সঙ্গে। এ ছাড়াও ভিন্ন ফ্লাইটে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টুও যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

তবে দলের একটি সূত্র জানায়, চিকিৎসা শেষ হয়ে গেলে ঈদের আগেও দেশে ফিরতে পারেন বিএনপি প্রধান।

জানা যায়, দলের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হবে লন্ডনে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন, নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা এবং দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের বিষয়ে দলীয় চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মধ্যে আলোচনা হবে। সরকার সহায়ক সরকার দাবি না মানলে আন্দোলনের রূপরেখা নিয়েও মা ছেলের মধ্যে কথা হবে। বিগত আন্দোলন সংগ্রামে বিএনপি নেতাদের কার কি ভূমিকা তা নিয়েও কথা হতে পারে দলের শীর্ষ দুই নেতার। বিতর্কিত ও নিষ্ক্রিয়দের বাদ দিয়ে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

এদিকে, ছাত্রদলের বিষয়টি দেখভাল করেন সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, তাই নতুন কমিটি নিয়েও মা খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বলতে পারেন তিনি। দেশে ফিরে ছাত্রদলের নতুন কমিটিও ঘোষণা দিতে পারেন বিএনপি প্রধান। কয়েকদিন ধরে রাতে গুলশানে চেয়ারপারসন কার্যালয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনের দাবিতে নেতা-কর্মীদের বিক্ষোভ করতে দেখা যায়। এছাড়াও অন্য অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের কার কি ভূমিকা তা নিয়েও খোলামেলা কথা উঠে আসতে পারে দুই নেতার দেখা সাক্ষাতে।

লন্ডনের একটি সূত্রে জানা যায়, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া লন্ডনে গিয়ে উঠবেন বড় ছেলে ও দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বাসায়। সেখানে পুত্রবধূ ডা. জোবায়দা রহমান, নাতনি জায়মা রহমান এবং ছোট ছেলে মরহুম আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান ও দুই নাতনির সঙ্গে সময় কাটাবেন বিএনপি প্রধান। পাশাপাশি লন্ডনের একটি হাসপাতালে তিনি চোখ ও পায়ের চিকিৎসাও করাবেন। পবিত্র ঈদুল আজহাও উদযাপন করবেন তারেক রহমানের পরিবারের সঙ্গে। এ ছাড়া বিএনপিসহ প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হতে পারেন তিনি। এ ছাড়া লন্ডনে সে দেশের সরকার ও বিরোধী দলের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন মন্ত্রী-এমপির সঙ্গে বিএনপি প্রধান দেখা সাক্ষাৎ করবেন। তবে লন্ডনে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। সবকিছুই দেখভাল করছেন তারেক রহমান। সেখানে নেতা-কর্মীসহ প্রবাসীদের সঙ্গে দেখা সাক্ষাতের জন্য একটি হোটেলও বুকিং দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। 

জানা যায়, খালেদা জিয়ার সফরকে ঘিরে লন্ডনে বিএনপি নেতাদের মিলনমেলা বসতে যাচ্ছে। আমেরিকা থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকাও আসবেন। ঢাকা থেকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের আরও কয়েকজন নেতাও লন্ডনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকেও লন্ডনের দিকে পাড়ি জমাচ্ছেন অনেকেই। 

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, এ সফরে  চেয়ারপারসন ও দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে কিছু বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেবেন। লন্ডন ভিজিটে তিনি হয়তো কোনো আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন  যোগাযোগের  চেষ্টা করবেন। শীর্ষ দুই নেতার আলোচনার অন্যতম এজেন্ডা হতে পারে আগামী নির্বাচনে দলের সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা।

চিকুনগুনিয়া নিয়ে খালেদার টুইট : এদিকে রাজধানীতে মহামারী আকার ধারণ করা চিকুনগুনিয়া জ্বর ও মশা নিয়ন্ত্রণে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। গতকাল এক টুইট বার্তায় সরকারের উদ্দেশে এ আহ্বান জানান তিনি। সর্বশেষ ২০১৫ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। সেখানে তিনি  চোখ ও পায়ের চিকিৎসা নেন। দুই মাসের বেশি সময় লন্ডনে অবস্থান  শেষে ২১ নভেম্বর  দেশে ফেরেন। লন্ডনে পারিবারিক পরিমণ্ডলে সময় কাটানোর পাশাপাশি বিএনপির আয়োজনে দুটি অনুষ্ঠানেও অংশ নেন খালেদা জিয়া।

গো নিউজ২৪/পিআর