৪ ভাদ্র ১৪২৪, শনিবার ১৯ আগস্ট ২০১৭ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হচ্ছে বিশ্বের দীর্ঘতম কাঁচের সেতু


গো নিউজ২৪ | অনলাইন ডেস্ক আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৬ শুক্রবার
দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হচ্ছে বিশ্বের দীর্ঘতম কাঁচের সেতু

 

চীন চলতি সপ্তাহেই দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দিচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ও দীর্ঘ কাঁচের সেতু। খবর বিবিসির।

এই সেঁতুটি দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ হুনানের ঝাংজিয়াজি এলাকায় এভাটার (এভাটার সিনেমা চিত্রায়িত হয়েছিল) নামে পরিচিত দুটি পর্বতের খাড়া খাদে সংযুক্ত।

তিন স্তরের স্বচ্ছ কাঁচে নির্মিত ছয় মিটার চওড়া এবং ৪৩০ মিটার লম্বা এ সেতুটি তৈরিতে ৩৪ কোটি ডলার ব্যয় হয়। এটি ভূ-পৃষ্ট থেকে তিনশ` মিটার উঁচুতে অবস্থিত। বিশ্ব রেকর্ড সৃষ্টিকারী এ সেতুটির স্থপতি ইসরাইলের হাইম দোতান।

খুলে দেয়ার পর প্রতিদিন আট হাজার দর্শনার্থী সেতুটিতে উঠার সুযোগ পাবেন।

 

নিচে তুলে ধরা হল সেতুটির বিশেষত্ব 

এ যেন এক স্বর্গের সিঁড়ি! একেবারে স্বচ্ছ এই সিঁড়িটির শেষ মাথা মনে হয় আসলেই স্বর্গে গিয়ে ঠেকেছে। দেখে এমনটাই মনে হবে সবার কাছে।

ধবধবে সাদা মেঘের সিঁড়িতে জড়িয়ে থাকবে হিম কুয়াশা।

সেখানে দাঁড়িয়ে ছুঁয়ে দেয়া যাবে তুলার মতো নরম মেঘ।

স্বর্গের এই সিঁড়িতে পা রাখতে হলে আপনাকে যেতে হবে চীনে।

যারা সৌন্দর্য ভালোবাসেন তাদের জন্য দেশটির হুনান প্রদেশে নির্মিত হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম কাচের সেতু।জানা গেছে, গত সপ্তাহে সেতুটিতে কাচের তৈরি প্রথম মেঝেটি সংযুক্ত করা হয়েছে। এটি নির্মিত হচ্ছে চীনের জাংজিয়াজি জাতীয় উদ্যানে। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৪৩০ মিটার এবং প্রস্থ ৬ মিটার। ভূমি থেকে এর উচ্চতা প্রায় তিনশ মিটার।

সেতুটির অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। আশা করা হচ্ছে চলতি বছরের মে মাসের মধ্যে তা দর্শনার্থীদের ব্যবহারের জন্য খুলে দেয়া হবে।

এক সাথে ৮০০ মানুষ ধারণ করতে পারবে সেতুটি।

কাচের তলাবিশিষ্ট এ সেতুটির নকশা করেছেন ইসরায়েলী স্থপতি হাইম ডোটেন।

বিজ্ঞানী হাইম ডোটেন বলেন, `নয়নাভিরাম পর্যটনস্থান হিসেবে সেতুটি বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান হবে। সেতুটির কাঠামোর মাধ্যমে মেঘের কাছাকাছি এমন একটি দৃষ্টিনন্দন পরিবেশ তৈরি করবে, যা বিশ্বের অন্যতম নির্মাণশিল্প হিসেবে স্বীকৃতি পাবে। সেতুটি পর্যটকদের নিরাপদ আনন্দের উৎস হিসেবে ভূমিকা রাখবে বলে তিনি জানান।` 

গ্লাস ব্রিজের ভিডিও:

 

গো নিউজ২৪/বিএইচএম 

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত