৮ কার্তিক ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৪ অক্টোবর ২০১৭ , ২:৪১ পূর্বাহ্ণ

ঢাকার শীর্ষ ১৫ কলেজে ভর্তির বিস্তারিত


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক আপডেট: ১২ মে ২০১৭ শুক্রবার
ঢাকার শীর্ষ ১৫ কলেজে ভর্তির বিস্তারিত

ঢাকার শীর্ষ ১৫ কলেজে ভর্তির বিস্তারিত

সারাদেশ থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় ভালো ফল অর্জনকারী শিক্ষার্থীদের পছন্দের শীর্ষে থাকে রাজধানীর সেরা কলেজগুলো। কিন্তু কলেজগুলোর আসন এবং আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা সম্পর্কে না জানার কারণে অনেক শিক্ষার্থী এবং অভিভাবক অনেক সময় ঝামেলায় পড়েন।

গত ৯ মে থেকে অনলাইনে শুরু হয়েছে এ বছরের একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম। অনলাইনে ১৫০ টাকা ফি জমা দিয়ে সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ পছন্দক্রমের ভিত্তিতে আবেদন করা যাবে। ৯ থেকে ২৬ মে পর্যন্ত www.xiclassadmission.gov.bdওয়েবসাইটের পাশাপাশি টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএস করেও একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করা যাবে।

ঢাকার নামী ১৫টি  কলেজে খোঁজ নিয়ে তাদের আসন সংখ্যা এবং ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানা গেছে। পাঠকদের জন্য তার বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।

ঢাকা কলেজ
রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় অবস্থিত দেশের শীর্ষ স্থানীয় সরকারি ঢাকা কলেজে বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক শাখায় শুধু ছাত্রদের ভর্তি করা হয়। কলেজটিতে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বাধিক ৯০০ আসন রয়েছে। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য বরাদ্দ ২৫০ আসন এবং মানবিক বিভাগে আসন রয়েছে ২০০। আগের বছর ইংরেজি মাধ্যমের জন্য বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১৫০ আসন বরাদ্দ থাকলেও এ বছর  তা বিলুপ্ত করা হয়েছে। বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির ন্যুনতম যোগ্যতা জিপিএ-৫ ব্যবসায় শিক্ষার এবং মানবিক বিভাগের জন্য  জিপিএ ৪.৫।

নটর ডেম কলেজ
রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় অবস্থিত ছাত্রদের জন্য দেশের অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নটরডেম কলেজে একাদশ শ্রেণির দুই ভার্সনে প্রতি বছর ২ হাজার ৬০০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। তবে কোন বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য কত আসন তা বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ করা না হলেও খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কলেজটির অধিকাংশ আসন বাংলা ভার্সন এবং বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বরাদ্দ। চলতি বছরের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি এখনও প্রকাশ করেনি কলেজটি। গত বছরের ভর্তির তথ্য অনুযায়ী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা বিজ্ঞান বিভাগের জন্য উচ্চতর গনিতসহ জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য জিপিএ ৪ এবং মানবিক বিভাগের জন্য জিপিএ ৩.২৫ থাকতে হবে।

ভিকারুননেসা নুন কলেজ
রাজধানীর বেইলী রোডে অবস্থিত কলেজটির মূল শাখায় মূলত নিজস্ব স্কুল শাখার শিক্ষার্থীদেরই ভর্তির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী শুধুমাত্র বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ করা অন্য স্কুলের শিক্ষার্থীরা ইংরেজি ভার্সনের সীমিত সংখ্যক আসনে ভর্তির আবেদন করার সুযোগ পাবেন। আবেদনের যোগ্যতা ন্যুনতম জিপিএ ৫।

রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ
উত্তরায় অবস্থিত কলেজটির চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, এ বছর প্রভাতি ও দিবা শাখার বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমে মোট ১ হাজার ৬৩৮ আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এর মধ্যে বাংলা মাধ্যমে ১ হাজার ২৬০ জন এবং ইংরেজি মাধ্যমে ৩৭৮ জন। আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞানের জন্য জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষার জন্য ৪ এবং মানবিক শাখার জন্য ৩.৭৫।

হলিক্রস কলেজ
রাজধানীর ফার্মগেটের হলিক্রস কলেজেও একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে মূলত নিজস্ব স্কুল শাখার শিক্ষার্থীদেরই প্রাধান্য দেওয়া হয়। বহিরাগতদের জন্য সীমিত সংখ্যক আসন বরাদ্দ থাকে। এ বছর তাদের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি আগামী ১৪ মে প্রকাশ করার কথা রয়েছে। গত বছরের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী কলেজটি আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞান বিভাগের জন্য জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য জিপিএ ৪ এবং মানবিক বিভাগের জন্য জিপিএ ৩।

সরকারি বিজ্ঞান কলেজ
বিজ্ঞান শিক্ষার জন্য বিশেষায়িত রাজধানীর ফার্মগেট এলাকায় অবস্থিত সরকারি বিজ্ঞান কলেজ চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। কলেজটিতে মোট আসন রয়েছে ১ হাজার ২০০টি। কেবলমাত্র জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ছাত্ররাই কলেজটি আবেদন করতে পারবেন।

মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ
কলেজটির স্কুল শাখার শিক্ষার্থীদের ভর্তি করে আসন খালা থাকা সাপেক্ষে অন্য স্কুলের শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়। সেক্ষেত্রে আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞান বিভাগের জন্য জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য ৪.২৫ এবং মানবিক বিভাগের জন্য ৩।

ঢাকা কমার্স কলেজ
মিরপুরে অবস্থিত ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষায়িত ঢাকা কমার্স কলেজে বাংলা ও ইংরেজি ভার্সনে মোট ২ হাজার ৯০০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। যার মধ্যে ইংরেজি ভার্সনের জন্য আসন বরাদ্দ ১০০টি। গত শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী যেকোন বিভাগ থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ জিপিএ ৩.৫০ অর্জনকারী শিক্ষার্থীরা কলেজটিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ঢাকা সিটি কলেজ
ধানমণ্ডির মিরপুর রোডে অবস্থিত কলেজটি ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুয়ায়ী,  প্রভাতি ও দিবা শাখায় তিন বিভাগে মোট ৩ হাজার ৪৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এর মধ্যে ইংরেজি মাধ্যমের জন্য মাত্র ১৫০টি আসন বরাদ্দ। কলেজটিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হলে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের উচ্চতর গনিতসহ জিপিএ ৫, ব্যবসায় বিভাগের জন্য জিপিএ ৩.৭৫ (প্রভাতি) ও ৪ (দিবা) এবং মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জিপিএ ২.৫০ থাকতে হবে ন্যুনতম।

রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ
মোহাম্মদপুরে অবস্থিত কলেজটির বাংলা ও ইংরেজি ভার্সনে মোট আসন রয়েছে ৯১০টি যার মধ্যে ইংরেজি ভার্সনের জন্য বরাদ্দ ১৪০টি আসন। কেবল ৫১৪টি আসনের জন্য অন্য স্কুল থেকে পাশ করা শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারবে। গত বছরের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষার নিজস্ব শিক্ষার্থীদের জন্য ৪ এবং বহিরাগতদের জন্য ৪.৫ এবং মানবিক শাখার জন্য নিজস্ব শিক্ষার্থীদের জন্য ৩.৫ এবং বহিরাগতদের জন্য ন্যুনতম জিপিএ ৪ থাকতে হবে।

বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজ
বিজিবির সদরদপ্তর পিলখানায় অবস্থিত কলেজটিতে এ বছর প্রভাতি ও দিবা শাখায় বাংলা ও ইংরেজি ভার্সনে মোট ১ হাজার ৯৩০ জন ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হবে। এর মধ্যে ইংরেজি ভার্সনের জন্য ২০০ আসন বরাদ্দ। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষার ছাত্র জিপিএ ৪ ও ছাত্রী ৩.৩৫ এবং মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ ৩ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরাই কেবল আবেদন করতে পারবে।

বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আবদুর রউফ পাবলিক কলেজ
পিলখানার অপর এ কলেজটি প্রভাতী ও দিবা শাখায় এ বছর মোট ১ হাজার ৭০০ ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হবে। আবেদনের  ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞান বিভাগের জন্য জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষার জন্য ৪.২৫ এবং মানবিক বিভাগের জন্য ৩.৭৫।

বিএএফ শাহীন কলেজ
ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত কলেজটি চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। আসন সংখ্যা প্রকাশ না করলেও আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা উল্লেখ করা হয়েছে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে ৩.৫ এবং মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ ২.৫ পেয়ে মাধ্যমিক উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা কলেজটিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

সেন্ট যোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়
মোহাম্মদপুরের সেন্ড যোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কলেজ শাখায় বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য তিন বিভাগের জন্য আসন রয়েছে মোট ৭২০টি। আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের জন্য জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষার জন্য ৪.৫ এবং মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য জিপিএ ৩। ইংরেজি ভার্সনের ৮০টি আসনে কেবল বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৪.৮৮ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীই আবেদন করতে পারবে।

উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এবং ক্যাম্পাসে অবস্থিত কলেজটিতে ভর্তির ক্ষেত্রে প্রাধান্য দেওয়া হয় ‍এর স্কুল শাখার শিক্ষার্থীদের। তারপরেও বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের মোট ৫০০ আসনে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বহিরাগত শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পায়। আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা বিজ্ঞান বিভাগের জন্য জিপিএ ৪.৭৮ এবং ব্যবসায় শিক্ষার জন্য ৩.৭২।

ভর্তির জন্য গুরুত্বপূর্ণ তারিখসমুহ
৯ থেকে ২৬ মে অনলাইনে এবং টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএসে আবেদন করা যাবে। যারা ফল পুনঃনিরীক্ষণার আবেদন করেছে, তাদেরকেও এই সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে। ২৭ থেকে ২৯ মে শিক্ষার্থীদের আবেদন যাচাই-বাছাই ও আপত্তি নিষ্পত্তি করা হবে। পুনঃনিরীক্ষণে যাদের ফল পরিবর্তন হবে তারা ৩০ থেকে ৩১ মে পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। ৫ জুন প্রথম পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করা হবে।

প্রথম তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের ৬ থেকে ৮ জুন সিলেকশন নিশ্চিত (যে কলেজের তালিকায় নাম আসবে ওই কলেজেই যে শিক্ষার্থী ভর্তি হবেন- তা এসএমএসে নিশ্চিত করা) করতে হবে। মাইগ্রেশনের আবেদন (অপশন প্রদান) এবং নতুন আবেদন করা যাবে ৯ থেকে ১০ জুন। ১৩ জুন দ্বিতীয় পর্যায়ে এবং ১৮ জুন তৃতীয় পর্যায়ের ভর্তি ফল প্রকাশ করা হবে।

দ্বিতীয় পর্যায়ের তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীরা ১৪ থেকে ১৫ জুন সিলেকশন নিশ্চিত করবে এবং মাইগ্রেশন আবেদন (অপশন প্রদান) ও নতুন আবেদন করতে হবে ১৬ থেকে ১৭ জুন। তৃতীয় পর্যায়ে তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের ১৯ জুন সিলেকশন নিশ্চিত করবে।

২০ থেকে ২২ জুন এবং ২৮ থেকে ২৯ জুন দুই দফায় শিক্ষার্থী ভর্তি শেষে আগামী ১ জুলাই ক্লাস শুরু হবে।


গো নিউজ২৪/এএইচ