১০ শ্রাবণ ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৫ জুলাই ২০১৭ , ৮:৪৪ পূর্বাহ্ণ

ডিজিটালাইজড হচ্ছে বিশ্বসেরা হাফেজ মামুনের মাদ্রাসা


গো নিউজ২৪ | মিশর থেকে ইউ.এইচ.খান আপডেট: ০১ জুলাই ২০১৭ শনিবার
ডিজিটালাইজড হচ্ছে বিশ্বসেরা হাফেজ মামুনের মাদ্রাসা

বিশ্বসেরা হাফেজ মামুনের শিক্ষার সমস্ত ব্যায়ভার গ্রহনের পর এবার তার মাদ্রাসাকে পরিপূর্ন ডিজিটাল করে গড়ে তোলার ঘোষণা মিশর আওয়ামী লীগ সভাপতির। 

হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন এ বছর এপ্রিলে মিশরের কায়রোতে অনুষ্ঠিত বিশ্ব হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেছিল। গত ২২ শে জুন মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি তার হাতে বিশেষ পুরস্কার তুলে দেন। 

হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন ৭৯/১/জি , উত্তর যাত্রাবাড়ি, ঢাকায় তাহফিজুল কুরআন ওয়াসসুন্নাহ মাদরাসার ছাত্র। এই মাদরাসাটি অতীতে অনেক কৃতি হাফেজ উপহার দিয়েছে। এপ্রিলে প্রথম স্থান ঘোষনার সময় মিশর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং বিশিষ্ট প্রবাসী ব্যাবসায়ী এ.জি.এম. সাইদুল হক সুমন হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুনের লেখাপড়ার সমস্ত ব্যায়ভার গ্রহন করেছিলেন। 

মিশরের প্রেসিডেন্টের পুরস্কার বিতরনের সময় হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন-এর সফর সঙ্গী ছিলেন তার মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব হাফেজ ক্বারী নাজমুল হাসান। 

মিশরে এসে তিনি  এ.জি.এম. সাইদুল হক সুমন ও মিশরস্থ আরবী ই এডুকেশন টেকনোলজী প্রোভাইডার “আইডিয়া ইনোভেটিভ” এর ইন্জিনিয়ারদের সাথে বৈঠকে মিলিত হয়। বৈঠকে আগামী ছয় মাসে, তাহফিজুল কুরআন ওয়াসসুন্নাহ মাদরাসা পরিপূর্ন ভাবে আরবী, বাংলা, ও ইংরেজী ভাষা সমৃদ্ধ একটি পরিপূর্ন আইসিটি বেইজড মডেল মাদ্রাসা হিসেবে তৈরি করা হবে বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

ই-ক্লাস, ই-অ্যাটেন্ডেন্ট , মোবাইল অ্যাপস বেইজড ম্যাটেরিয়াল, ক্লাউড একাউন্টিং, ক্লাউড ইনভেনটরি, জিপিএস ভেহিকেল ট্র্যাকিং, ক্লাউড  ফিঙ্গার প্রিন্ট বেইজড সেন্ট্রাল সিস্টেম, কাস্টমাইজড ক্লাউড শেয়ারিং সহ অনেক অত্যাধুনিক ফিচার এই সফটওয়ারে ব্যাবহার করা হবে। 

তবে বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে অনলাইন লাইব্রেরী।  ইংরেজী ও বাংলার পাশাপাশি এখানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দূস্প্রাপ্য ও বিভিন্ন ধরনের আরবী কিতাবের বিশাল সংগ্রহ থাকবে।  যা মাদ্রাসার ছাত্ররা তাদের একাউন্টে দিয়ে মোবাইল অথবা কম্পিউটারের সাহায্যে লগ-ইন করে পড়তে পারবে। ছাত্রদের সুবিধার্থে মাদ্রাসার কম্পাউন্ডে ক্লাউড বেইজড  ইন্ট্রানেট ওয়াই ফাই জোন গড়ে তোলা হবে। উচ্চমানের সিকিউরিটি সিস্টেমের সাহায্যে তথ্য সুরক্ষা ও অপপ্রয়োগ রোধ করা হবে। 

আর এই প্রকল্পের পুরো ব্যায়ভার বহন করবে মিশর আওয়ামী লীগ সভাপতি এ.জি.এম. সাইদুল হক সুমন। এ বিষয়ে তাহফিজুল কুরআন ওয়াসসুন্নাহ মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব হাফেজ ক্বারী নাজমুল হাসান বলেন “আমাদের মাদ্রাসা একাধিক বার বিশ্বসেরা পুরস্কার পাওয়া প্রতিষ্ঠান। 

তবে এখনকার ডিজিটাল যুগের সাথে তাল মেলাতে  প্রয়োজন ডিজিটাল শিক্ষা ব্যাবস্থা। মিশরে এসে দেখলাম এখানকার উন্নত ফিচার সমৃদ্ধ ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতি। আমাদেরও ইচ্ছা এমন একটি অত্যাধুনিক ডিজিটাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা। কিন্তু সফটওয়ার এবং আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি অনেক ব্যায়বহুল যা আমাদের অনুদানবিহীন প্রতিষ্ঠানের একার পক্ষে বহন করা অসম্ভব। আল্লাহ রব্বুল আলামিন সমস্যার সমাধান করে দিয়েছেন সুমন ভাইয়ের মাধ্যমে। তিনি আমাদের হয়ে তার মিশরস্থ কম্পানির মাধ্যমে পুরো ডিজিটাল ব্যবস্থা নির্মানের সমস্ত ব্যায়ভারের নিশ্চয়তা প্রদান করেছেন। আল্লাহ তায়ালা তাকে তার নিয়তের বরকত দান করুন। ইনশাআল্লাহ আগামী জানুয়ারী থেকে আমরা পরিপূর্ন ডিজিটাল মাদ্রাসা হিসেবে যাত্রা শুরু করব। ”

বাংলাদেশে মিশরস্থ টেকনোলজি ফার্মের হয়ে ইন্সটল ও মেইনটেন্যান্স সেবা দেবে টালি একাউন্টিং সলিউশনের সুপরিচিত গ্লোবাল ডিজিটাল মার্ট। আগামী আগস্ট মাসে গ্লোবাল ডিজিটাল মার্টের ইন্জিনিয়ারগন প্রশিক্ষনের জন্য মিশর আসবেন। অর্থায়ন সহ সার্বিক বিষয়ে মিশর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.জি.এম. সাইদুল হক সুমনের কাছে জানতে চাইলে এই প্রতিবেদককে বলেন “ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন ২০২১ ঘোষনা করেছেন। বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে তথ্য প্রযুক্তির সর্বোচ্য ব্যবহার আবশ্যিক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও তার সুযোগ্য পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দেশকে ইতিমধ্যেই ডিজিটাল সেবার দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে।  আমার অবস্থান থেকে তৌফিক অনুযায়ী আমিও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার কাজে অংশগ্রহন করার চেষ্টা করি সব সময়।  

আমরা দান করা বা সহায়তা বলতে শুধু মসজিদ/মাদ্রাসা বা এতিমখানা/লিল্লাহ বোর্ডিং এ খাবার অথবা বিল্ডিং নির্মানের জন্য টাকা দান করা মনে করি। কিন্তু বর্তমান যুগে ইসলামের প্রচার ও প্রসারের জন্য প্রযুক্তির গুরুত্ব অপরিসীম। আর যে মাদ্রাসা থেকে হাফেজ মামুনের মত ছাত্র সৃষ্টি হয় , প্রযুক্তির ছোয়া পেলে এই মাদ্রাসা বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে বলে আমি বিশ্বাস করি। আমি একটি মাদ্রাসার ডিজিটালাইজড এর জন্য সাধ্যমত চেষ্টা করছি। আশা করি অন্যান্যরা নিশ্চয় একইরকম অন্য প্রতিষ্ঠানের জন্য এগিয়ে আসবেন। এভাবেই ইসলাম এবং সর্বপরি আমাদের জাতি সামনে এগিয়ে যাবে। উন্নত সহজলভ্য জ্ঞানের আলোয় ভরে উঠবে দেশ। নির্মূল হবে জঙ্গিবাধের ভয়াল থাবা।”

গো নিউজ২৪/এএইচ

ইসলাম বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত