১২ আষাঢ় ১৪২৪, রবিবার ২৫ জুন ২০১৭ , ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ

ঝালকাঠিতে ট্রলারডুবির চারদিন পর ৩টি লাশ উদ্ধার


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০১৭ মঙ্গলবার
ঝালকাঠিতে ট্রলারডুবির চারদিন পর ৩টি লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে  স্টিমারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবিতে নিখোঁজের ৪ দিন পর ৩ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সাকালে সুগন্ধার নদীতে ভেসে ওঠা মরদেহগুলো উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও পুলিশ।

ঝালকাঠি ফায়ারস্টেশন লিডার মো. গোলাম রসুল জানান, সুগন্ধা নদীর পুরাতন কলেজ খেয়াঘাটে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আলম জমাদ্দার (৩৫) ও আবদুর রাজ্জাক মল্লিকের (৩২) লাশ  এবং রাজাপুর উপজেলার মানকি গ্রামের সাইক্লোন শেল্টার এলাকায় সকাল সাড়ে ৯টায় তসলিম হাওলাদারের (৫০) লাশ ভেসে ওঠে। পরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও পুলিশ লাশগুলো উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, অপারেশন) মাহে আলম জানান, শুক্রবার সকালে স্টিমারের সঙ্গে যাত্রীবাহী ট্রলারের ধাক্কায় ট্রলারের নিখোঁজ ৩ যাত্রীদের আজ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ সকালে স্থানীয় লোকজন নদীতে লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরির সহযোগিতায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃতদের পরিবারের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের কাজ সম্পন্ন হলে আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী হস্তান্তর করা হবে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার সকালে ঝালকাঠি সদর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের খেয়াঘাট থেকে ১০ জন যাত্রী নিয়ে একটি ট্রলার ঝালকাঠি শহরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। সকাল আটটার দিকে সুগন্ধা নদীর গুরুধাম খালের মোহনা এলাকায় ঘন কুয়াশার মধ্যে ট্রলারটিকে ধাক্কা দেয় ঢাকা থেকে খুলনাগামী স্টিমার মধুমতী। এতে মাঝ নদীতে ডুবে যায় ট্রলারটি। এ সময় চালকসহ ট্রলারের ৮ যাত্রী স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় তীরে উঠতে সক্ষম হন। বাকি তিনজন নিখোঁজ হন।

গো-নিউজ২৪/বিএস