১৬ চৈত্র ১৪২৩, বৃহস্পতিবার ৩০ মার্চ ২০১৭ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

জোৎস্নায় ঝিলমিল করে টাঙ্গুয়া হাওর


গো নিউজ২৪ | ডেস্ক নিউজ আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ শনিবার
জোৎস্নায় ঝিলমিল করে টাঙ্গুয়া হাওর

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের দর্শনীয় স্থানগুলোকে পর্যটকদের কাছে তুলে ধরতে টাঙ্গুয়ায় দুই দিনব্যাপী জোৎস্না উৎসব হবে। 

 

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে এ উৎসব চলবে আগামী ১৬ ও ১৭ সেপ্টেম্বর। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

 

উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানা যায়, সুনামগঞ্জ জেলার হাওরকেন্দ্রিক উপজেলা তাহিরপুর। এ উপজেলায় টাঙ্গুয়ার হাওর, যাদুকাটা, বারেকটিলা, বড়গুফ টিলা, ট্যাকেরঘাট চুনাপাথর খনিজ প্রকল্প, হাওলি জমিদার বাড়ি, ইসকন মন্দির, অধৈত প্রভুর মন্দির, শাহআরেফিন মোকাম ও ‘বাংলার কাশ্মীর’ বলে খ্যাত নীলাদ্রী লেকসহ অসংখ্য দর্শনীয় স্থান রয়েছে।

 

এসব দর্শনীয় স্থানগুলোকে কেন্দ্র করে এ উপজেলায় পর্যটনের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সাথে দেশি-বিদেশি অনেক পর্যটক আছেন, যারা তাহিরপুরের দর্শনীয় স্থানগুলো সম্বন্ধে খুব জানেন না। তাই তাহিরপুরে পর্যটনের স্বার্থে ও পর্যটকদের তাহিরপুর উপজেলার দর্শনীয় স্থানগুলো পরিচয় করিয়ে দিতে টাঙ্গুয়ায় জোৎস্না উৎসবের আয়োজন।

 

আয়োজনে থাকছে টাঙ্গুয়ার হাওরে ৫০টি নৌকা ও লঞ্চে পর্যটকদের নিয়ে হাওরের হিজল-করচ বাগানসহ বিভিন্ন বিল জলাশয় ঘুরে দেখা, হাওরে নৌকায় থেকে ভাসমান মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ, পূর্নিমায় জল-জোৎস্না উপভোগ, টাঙ্গুয়া থেকে যাদুকাটা নদী পর্যন্ত নৌ-পথ ভ্রমন, সীমান্তবর্তী বারেক টিলা, ট্যাকেরঘাট নীলাদ্রী লেক, কড়ইগড়া আদিবাসী পল্লী ও তাদের সংস্কৃতি উপভোগসহ বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখার ব্যবস্থা রয়েছে এ জোৎস্নাউৎসবে।ইতোমধ্যে অনেক পর্যটক স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে টাঙ্গুয়া হাওরে জোৎস্না উৎসবে যোগ দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করছেন।

 

ট্রাভেলার শাহীন আহমেদ ও রাসেল ভুইঞা জানান, তাহিরপুরে টাঙ্গুয়া, যাদুকাটা, বারেকটিলাসহ একাধিক দর্শনীয় স্থান রয়েছে- যা দেখে ঢাকা থেকে কিংবা বিভিন্ন শহর থেকে ঘুরতে আসা পর্যটকরা মুগ্ধ হন। আমরাও চেষ্টা করব টাঙ্গুয়া হাওরে জোৎস্না উৎসবে যোগ দিতে।

 

তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন খান বলেন, টাঙ্গুংয়ার হাওরে জোৎস্না উৎসবের মধ্যদিয়ে আমরা তাহিরপুর উপজেলাকে দেশবাসীর কাছে তুলে ধরে পরবর্তীতে পর্যটনের জন্য সরকারের কাছে জোড় দাবি জানাব। 

 

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল বলেন, টাঙ্গুয়া হাওরসহ তাহিরপুরের সবগুলো দর্শনীয় স্থানকে পর্যটকদের কাছে আরও ভালভাবে উপস্থাপনের জন্য টাঙ্গুয়া হাওরে আমাদের এ জোৎস্না উৎসব।

 

এ বিষয়ে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. হারুনর রশিদ বলেন, টাঙ্গুয়া হাওরে এ রকম একটি আয়োজন তাহিরপুরকে পর্যটনের জন্য আর এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

 

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, টাঙ্গুয়া হাওরে জোৎস্না উৎসবের মধ্যে দিয়ে তাহিরপুরের দর্শনীয় স্থানগুলো বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরার যে প্রয়াস ব্যাক্ত করেছেন তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসন আমি তাদের সাধুবাদ জানাই, সেই সাথে হাওরের পরিবেশ রক্ষার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানাই।

 

গো নিউজ২৪/আ ফ ম  

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত