৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

‘চাচা অসুস্থ’ বলে নিয়ে গিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণ


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০১৭ সোমবার
‘চাচা অসুস্থ’ বলে নিয়ে গিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণ

ঢাকা:ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ উপজেলার বৈরচুনা ইউনিয়নের ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। রোববার মধ্য রাতে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই কিশোরীকে পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন।

ধর্ষণের ঘটনায় রেজাউল ও লুৎফরের নাম উল্লেখ্য করে অজ্ঞাতনামা আরো ৪ জনের বিরুদ্ধে নির্যাতিতার চাচা পীরগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযুক্ত লুৎফরকে গ্রেফতার করেছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই কিশোরী বলে, পীরগঞ্জের একটি হোটেলে দৈনিক হাজিরা ভিত্তিতে সবজি কাটা, বাসন ধোয়ার কাজ করে সে। শুক্রবার রাতে হোটেলের কাজ শেষে বের হলে রেজাউল (সম্পর্কে চাচা) খবর দেয় আমার বড় চাচা রিকশা চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়েছে। তাই আমাকে যেতে হবে।

রেজাউল এসময় আমাকে অটোরিকশায় তুলে কিছুদূর নিয়ে গিয়ে একটি ফাঁকা রাস্তার পাশে রিকশা থেকে নামিয়ে নেয়। পরে রেজাউলের সঙ্গে লুৎফরসহ আরো ৪ জন পালাক্রমে ধর্ষণ করে। আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তারা পালিয়ে যায়।

সে জানায়, ভোরে জ্ঞান ফিরে পাশে একটি মোবাইল ফোন পড়ে থাকতে দেখে। কোনোমতে অসুস্থ অবস্থায় পীরগঞ্জ থানায় গিয়ে সে ওসিকে বিষয়টি জানায় ও মোবাইল ফোনটি জমা দেই। পুলিশ পরে তাকে পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়। রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য পুলিশ সুপার ঠাকুরগাঁও হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ জানান, দিন দিন মানুষের মাঝে কেন জানি বিবেক বুদ্ধি হারিয়ে যাচ্ছে। মেয়েটির উপর পাশবিক নির্যাতনের ঘটনাটি আমার নিজের মনকেও নাড়া দিয়েছে। দ্রুত আসামিদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে।

গোনিউজ২৪/কেএইচ