৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ৯:০০ পূর্বাহ্ণ

ঋষভের মধ্যে নতুন ধোনির খোঁজ। পড়ুন ঋষভের উত্থানের কাহিনি


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১১ জানুয়ারি ২০১৭ বুধবার
ঋষভের মধ্যে নতুন ধোনির খোঁজ। পড়ুন ঋষভের উত্থানের কাহিনি

গলি থেকে রাজপথ। এ ভাবেই হয়তো ঋষভ পন্থের উত্তরণকে ব্যাখ্যা করা যায়। শুক্রবারই নির্বাচকরা ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের ওয়ানডে ও  টি-টোয়েন্টির দল ঘোষণা করেছেন। টি-টোয়েন্টি দলে জায়গা করে নিয়েছেন ঋষভ পন্থ। দ্রত রান তুলতে যাঁর জুড়ি মেলা ভার। এই ঋষভের মধ্যেই গোটা ভারত নতুন মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে খুঁজছে। রাঁচির রাজপু্ত্র নিজেই সরে দাঁড়িয়েছেন নেতৃত্ব থেকে। তিনি রাজ্যপাট ছেড়ে দেওয়ায় বিরাট কোহলির মাথায় উঠেছে নতুন মুকুট। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের নেতা নির্বাচিত হয়েছেন কোহলি। বিরাটের দলে নতুন মুখ ঋষভ।

জাতীয় দলে জায়গা পেতে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়েছে ঋষভকে। নিরন্তর পারফর্ম করে গিয়েছেন। জানতেন, পারফর্ম করতে পারলেই জাতীয় দলের দরজা খুলে যাবে সশব্দে। তারই পুরস্কার পেয়েছেন দিল্লির এই ক্রিকেটারটি। উত্তরাখণ্ডের অনামী অখ্যাত জায়গা থেকে উত্থান ঋষভের। সেখান থেকে ডিডিসিএ-তে অনুশীলন করতে আসতেন। পকেটে বেশি পয়সা না থাকায় অনেক সময়েই গুরুদ্বারেই রাত কাটাতেন ঋষভ। শুক্রবার দল ঘোষণার খবর তাঁর কাছে পৌঁছতেই খুশিতে ডগমগ এই বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান। শনিবার সকালে এবেলা.ইন-কে ঋষভ বললেন, ‘খুব ভাল লাগছে। অনেক পরিশ্রমের ফল পেলাম।’ পরিশ্রমের ফল যে মিষ্টিই হয়।  

ঋষভের কোচ তারক সিংহ।গোটা ভারতের আশঙ্কা, ধোনি ক্রিকেট থেকে সরে গেলে উইকেটের পিছনে দাঁড়াবেন কে? বিরাট বড় শূন্যতা তৈরি হবে না তো? সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ধোনির জায়গা নেওয়ার অন্যতম দাবিদার ঋষভ। তাঁকে কড়া চ্যালেঞ্জে ফেলে দিতে পারেন ধোনির রাজ্যের ঈষান কিষাণ। জাতীয় দলের দরজা খুলে ফেললেও ঋষভের পথ কিন্তু পাপড়ি বিছানো নয়। ঋষভ কী বলছেন? তিনি কি মনে করেন, ধোনির জায়গা দখল করে নিতে পারবেন? ঋষভ বলছেন, ‘ধোনি স্যারের জায়গা নেওয়ার ব্যাপারে আমি আত্মবিশ্বাসী।’  

বন্ধুর সঙ্গে প্রতিযোগিতা, ধোনির শূন্যস্থান পূরণ— এই সব বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাতে একেবারেই রাজি নন এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। আপাতত তিনি পারফর্ম করে যেতে চান। 

২০১৬-র অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে জাতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন তিনি। সেই টুর্নামেন্টে ১৮ বলে ঝোড়ো পঞ্চাশের ইনিংস খেলেছিলেন। সবাই তো সেই ইনিংস দেখে অবাক। তাঁর গুরু তারক সিংহ অবশ্য একেবারেই অবাক হননি। হাতের তালুর মতো চেনেন ছাত্রকে। এই তারক সিংহের হাত থেকে এক সময়ে বেরিয়েছেন রমন লাম্বা, আকাশ চোপড়া, শিখর ধাওয়ান, আশিস নেহরার মতো তারকা। ঋষভ সম্পর্কে কোচ বলছেন, ‘ঋষভ এক জন সত্যিকারের স্ট্রোক প্লেয়ার। ধোনির জায়গা নেওয়ার জন্য আদর্শ ছেলে।’ 

শুধু অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ নয়, দিল্লির জার্সিতে রনজি খেলার সময়ে ঋষভের ব্যাট কথা বলেছে। অসমের বিরুদ্ধে শতরান দিয়ে তাঁর আবির্ভাব। মহারাষ্ট্রের বিরুদ্ধে রেকর্ড ভাঙা ট্রিপল সেঞ্চুরি। এখানেই শেষ নয়, ঋষভের ব্যাট থেকে রানের বন্যা ছুটেছে রনজি ট্রফিতে। তারই ফল এখন পেয়েছেন ঋষভ। 

জাতীয় দলে জায়গা পাওয়ার জন্য ঋষভের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন ঈষাণ কিষাণ। যে কোনও মুহূর্তে ঋষভের জায়গা কেড়ে নিতে পারেন তিনি। বন্ধু ঈষাণের কাছ থেকেই আসতে পারে প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা। কী বলছেন ঋষভ?  ‘ঈষাণ আমার খুব ভাল বন্ধু। কিন্তু ওর সঙ্গে আমার কোনও প্রতিযোগিতা নেই’, বলছিলেন সদ্য জাতীয় দলে জায়গা পাওয়া ক্রিকেটারটি। কোচ তারকের বক্তব্য কিন্তু অন্য। তাঁর কথায়, ‘সুস্থ প্রতিযোগিতা থাকলে নিজের সেরাটাই বেরিয়ে আসে।’ 

শিষ্য যে জাতীয় দলে জায়গা পেয়েছেন, সেই খবর আগেই এসেছে কোচের কাছে। অভিনন্দন জানানো ছাড়া বিশেষ কথা হয়নি কোচের সঙ্গে। ছাত্র সম্পর্কে ঢালাও সার্টিফিকেট দিচ্ছেন তারক সিংহ। বলছেন, ‘ঋষভের রিফ্লেক্স খুব ভাল। হার্ড হিটার। শেষ পর্যন্ত বলটা দেখে। তার পরে স্ট্রোক নেয়। সেই কারণেই স্ট্রোক নেওয়ার জন্য অনেক সময় পায়।’ 

তারক সিংহের কাছ থেকে অনেক মণিমুক্তো পেয়েছে ভারত। আশিস নেহরা, শিখর ধাওয়ান, আকাশ চোপড়ার মতো ক্রিকেটার উঠে এসেছেন। ঋষভও আগামী দিনে তারকা হয়ে উঠবেন— এমনটাই আশা কোচের। কোচকে গুরুদক্ষিণা দিতে তৈরি ঋষভও। 
 

গো নিউজ ২৪/ এস কে