১০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ৭:০৮ অপরাহ্ণ

আ.লীগ নেতার জীবন বাঁচাতে কিডনি দিলেন কর্মী


গো নিউজ২৪ | জেলা প্রতিনিধি আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার
আ.লীগ নেতার জীবন বাঁচাতে কিডনি দিলেন কর্মী
বামে এমপি মোস্তফা রশিদী সুজা, ডানে কিডনিদাতা আলম হাওলাদার

খুলনা: খুলনা-৪ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার জীবন বাঁচাতে তাকে কিডনি দান করেছেন তারই এক কর্মী।

ওই কর্মীর নাম মো. আলম হাওলাদার।  তিনি খুলনা জেলা শ্রমিক লীগের এক কর্মী এবং রূপসা উপজেলার শ্রীফলতলা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বর।  এছাড়া কিডনিদাতা মো. আলম হাওলাদারের ছেলে হলেন- জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পারভেজ হাওলাদার।

এদিকে নেতাকে ভালোবেসে তার জীবন বাঁচাতে কিডনি দানের বিষয়টি খুলনার রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিডনিদাতাকে তার এই মহতী পদক্ষেপের জন্য সাধুবাদ জানিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, কয়েক মাস আগে সংসদ সদস্য মোস্তফা রশিদী সুজার দুটি কিডনি ড্যামেজ হয়ে গেছে বলে পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে ধরা পড়ে।  এরপর তিনি মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি হন।  নেতার এমন অসুস্থতার খবরে নিজের কিডনি দান করার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করেন আলম হাওলাদার।  এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে মোস্তফা রশিদী সুজার কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়।

পারভেজ হাওলাদার বাবার কিডনি দানের বিষয়ে সিঙ্গাপুর থেকে মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন, সোমবার সফলভাবে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। দুইজনই সুস্থ আছেন।

এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার ছেলে এস এম খালেদীন রশিদী সুকর্ণ জানান, তার বাবার শরীরে কিডনি সফলভাবে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে (আইসিইউ) রয়েছেন। তিনি কথা বলেছেন এবং সকলের খোঁজখবর নিয়েছেন। তিনি সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট ফরিদ আহমেদ বলেন, কিডনিদাতা শ্রমিক লীগের কর্মী মো. আলম হাওলাদার ইতিহাস গড়লেন। যা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

গোনিউজ২৪/এমবি