১০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১:১২ অপরাহ্ণ

আশুগঞ্জে অবৈধভাবে গড়ে উঠা অর্ধশতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ


গো নিউজ২৪ | আল মামুন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি আপডেট: ১৬ জুলাই ২০১৭ রবিবার
আশুগঞ্জে অবৈধভাবে গড়ে উঠা অর্ধশতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের পূর্ববাজার এলাকার কাচারীপুকুর পাড়ের খাসখতিয়ানের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে উঠা স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে উপজেলা প্রশাসন।  শনিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নির্বার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট জহিরুল ইসলামের নেতৃত্বে কাচারীপুকুরের চারপাশে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ৫টি বহুতল ভবনসহ অর্ধশতাধিক অবৈধস্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

স্থানীয় জনগণের সুবিধা ও শহরের সৌন্দর্য্য বর্ধণের জন্য কাচারীপুকুরের চার পাশে রাস্তা তৈরী করার জন্য অবৈধভাবে স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এসময় র‌্যাব, পুলিশ, স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ উপজেলা প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানকালে দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল করিম খান সাজু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনিরুল ইসলাম স্বপন, আবুল খায়ের, আবুল হোসেন ও আব্বাস উদ্দিন খান এর বহুতল ভবন সহ অর্ধশতাধীক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সরকারী খাস জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে। 

এব্যাপারে নির্বার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট জহিরুল ইসলাম বলেন, কাচারী পুকুরের চার পাশে ১৫/২০ ফুট জায়গা দখল করে এই সব স্থাপনা নির্মান করেছিল। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে কাচারী পুকুরের জায়গা দখলমুক্ত করতে এই উচ্ছেদ অভিযান করা হয়েছে। 

আশুগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও নির্বার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট আমিরুল কায়সার বলেন, কাচারী পুকুরের জায়গা হস্তান্তরের কোন সুযোগ নেই। যদি কেউ কাচারী পুকুরের জায়গা দখল করে কোন কাগজ তৈরী করে থাকে তা সম্পূর্ণ অবৈধ। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। 


গো নিউজ২৪/এএইচ