৭ ভাদ্র ১৪২৪, মঙ্গলবার ২২ আগস্ট ২০১৭ , ৭:৫৩ পূর্বাহ্ণ

আমাকে গ্রেফতার করলে সবাইকে জেলে যেতে হবে : দিলদার


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক আপডেট: ১৮ মে ২০১৭ বৃহস্পতিবার
আমাকে গ্রেফতার করলে সবাইকে জেলে যেতে হবে : দিলদার

নিজেদের জুয়েলারি ব্যবসা ‘বৈধ’ দাবি করে বনানীর হোটেলে দুই তরুণী ধর্ষণে অভিযুক্ত সাফাত আহমেদের বাবা আপন জুয়েলার্সের অন্যতম মালিক দিলদার আহমেদ বলেছেন, ‘এটা আমাদের বৈধ ব্যবসা। আমাকে যদি ডার্টি মানি ও স্বর্ণ চোরাচালানের জন্য গ্রেফতার করা হয়, তাহলে কোনো স্বর্ণ ব্যবসায়ী বাইরে থাকবে না। সবাইকে জেলে যেতে হবে।’

 ‘আপন জুয়েলার্স বন্ধ করলে, সারাদেশের জুয়েলার্স বন্ধ করতে হবে। কারণ আমি যেভাবে ব্যবসা করি, সবাই একইভাবে ব্যবসা করেন।’

বুধবার সারাদিন শুল্ক গোয়েন্দাদের জেরার মুখ থেকে বেরিয়ে এসে সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের তিনি এই কথা বলেন।

দিলদার আহমেদ বলেন, ‘আপন জুয়েলার্স ৪০ বছরের প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দুই লাখ মানুষের সংসার চলে।আমাদের অবৈধ কোনও কিছু নেই। সব কিছুরই বৈধ কাগজপত্র আছে। সেগুলো জমা দেওয়াটা সময়ের ব্যাপার। গত পাঁচ বছর ধরে দেশে সোনার কোনও আমদানি নাই। রিসাইকেলিং করেই এই গোল্ডগুলো বানানো হয়। আমি যেভাবে ব্যবসা করি, সারাদেশে সবাই একইভাবে ব্যবসা করেন। তাই আপন জুয়েলার্স যদি বন্ধ করা হয়, তাহলে সারাদেশের জুয়েলার্সও বন্ধ করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘শুল্ক গোয়েন্দারা যেসব কাগজপত্র চেয়েছেন, আমরা তা জমা দেবো। তবে আমাদের কাছে কোনও অবৈধ মালামাল নেই। শুল্ক গোয়েন্দারা তাদের কাজ করেছেন। তারা আমাদের কাছে যেসব ডকুমেন্টস চেয়েছেন আমরা সেগুলো জমা দেওয়ার জন্য পনেরো দিন সময় চেয়েছি। আমরা আমাদের পেপার্স শো করবো। একইসঙ্গে আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

সোনা ব্যবসার নেপথ্যে যে অস্বচ্ছতা আছে আপনি কি সেটা স্বীকার করেন? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে দিলদার আহমেদ বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির সেক্রেটারি ছিলাম। তখন অনেকবার বলা হয়েছিল ব্যবসায়ীদের একটা নীতিমালা করার জন্য। কিন্তু আমরা সেটা করতে পারিনি। একটা ব্যবসায় নীতিমালা থাকা উচিত। কারণ এখানে কিন্তু জবাবদিহিতার একটা প্রশ্ন থাকে।’

গো নিউজ ২৪/ এস কে