১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২৫ মে ২০১৭ , ১১:১২ পূর্বাহ্ণ

‘আমরা পোশাক রপ্তানি করি আর পাকিস্তান রপ্তানি করে জঙ্গি’


গো নিউজ২৪ আপডেট: ০৪ মার্চ ২০১৭ শনিবার
‘আমরা পোশাক রপ্তানি করি আর পাকিস্তান রপ্তানি করে জঙ্গি’

খুলনা: নৌপরিবহনমন্ত্রী শাহজাহান খান বলেছেন,“আমরা নিজেদের ঘাটতি পূরণ করে পোশাক, খাদ্য ও জাহাজ রপ্তানি করছি।  আর পাকিস্তানিরা রপ্তানি করছে জঙ্গি।  এজন্যই পাকিস্তান হচ্ছে সন্ত্রাসী দেশ। ’’

শনিবার দুপুরে খুলনা শহীদ হাদিস পার্কে ‘বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়ন’ খুলনা বিভাগীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, “আগামীতে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশ হবে। ২০৩০ সালের মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে পৃথিবীতে যে ৩০টি দেশ শীর্ষে অবস্থান করবে বাংলাদেশ সেই অবস্থানে চলে যাবে। এটা এখন আন্তর্জাতিকভাবে বলা হচ্ছে।”

শাহজাহান খান বলেন, “গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। মাদক যুব সমাজের জীবনিশক্তি ধ্বংস করছে। যুব সমাজসহ আমাদের সবাইকে মাদকের, জঙ্গির, বাল্যবিয়ে ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।”

তিনি বর্তমান সরকারকে শ্রমবান্ধব সরকার হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্যই দেশকে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। সব শ্রেণি-পেশার মানুষের মজুরি বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে শ্রমিকের মজুরি সর্বনিম্ন ৫ হাজার ৩০০ টাকা করা হয়েছে। গ্রাম পুলিশদের ভাতা দ্বিগুণ করে বর্তমানে ৩০০০-৩৪০০ টাকা করা হয়েছে। গ্রাম পুলিশদের সপ্তাহে এক দিন থানায় হাজিরা দেয়ার জন্য যাতায়াত ও দৈনিক ভাতা ৩০০ টাকার আদেশ ইতোমধ্যে জারি হয়েছে।”

তাদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, “এগুলো প্রশাসনিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে।” এসময় তিনি সদস্যদের আধুনিক গ্রাম পুলিশ হিসেবে গড়তে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ সংগঠনের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা গাজী ম ম আমজাদ হোসেন মিলন, খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, সাবেক এসপি মাহবুব উদ্দিন বীরবিক্রম, খুলনা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার এসএম শফিউলাহ এবং বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক রাজেকুজ্জামান রতন ।

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় প্রধান সমন্বয়ক শাহ জাহান কবির জহীর, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশাররফ হোসেন খান এবং কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কমান্ডার মোস্তফা কামাল। সম্মেলনে খুলনা বিভাগের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা গ্রাম পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য অংশ নেয়।

পরে মন্ত্রী বিআইডবিউটিএ ও বিআইডবিউটিসির জায়গা পরিদর্শন, সাড়ে ৩টায় খুলনা সার্কিট হাউসে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের উপদেষ্টা কমিটির ১৩তম সভায় যোগদান, সন্ধ্যায় খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কর্মীসভায় যোগদান এবং রাত ৮টায় ডুমুরিয়া উপজেলার বান্দা গ্রামে নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানে যোগদান করার কথা আছে। 

গোনিউজ২৪/এম