৫ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার ২১ আগস্ট ২০১৭ , ৩:০৬ পূর্বাহ্ণ

আজও ভেস্তে যেতে পারে কলকাতার ম্যাচ!


গো নিউজ২৪ | স্পোর্টস ডেস্ক আপডেট: ১৯ মে ২০১৭ শুক্রবার
আজও ভেস্তে যেতে পারে কলকাতার ম্যাচ!

প্রতিপক্ষের খেলোয়াড় ছাড়াও মাঝে মাঝে অন্যকিছুকে ভয় পেতে হয় খেলার মাঠে। এমন এক ভয় ও শঙ্কার মধ্যে রয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।  তার নাম ‘বৃষ্টি’।  চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে ঝড়-বৃষ্টির দাপট তো নাইটদের জন্য সব চেয়ে ভয়ংকর কথা।  বিরাট কোহালিদের কপাল পুড়েছিল আগের বার এই লড়াইয়ে বৃষ্টি জিতে যাওয়ায়। এ বার গম্ভীরদের জয়ের পিছনে এই ‘সাবএয়ার’ ড্রেনেজ সিস্টেমের অবদান যথেষ্ট। বুধবার হায়দরাবাদকে হারানোর পর গৌতম গম্ভীর টুইট করে কর্নাটক ক্রিকেট সংস্থাকে ধন্যবাদও জানান এই নতুন প্রযুক্তি আনার জন্য।

এছাড়া, অন্য হিসেব-নিকেশে করলে দেখা যায়, মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে কলকাতা কী কী পেয়েছেন। সেখানে দেখা যাবে হার ছাড়া তেমন কিছু পায়নি কেকেআর।  আইপিএলে দুই দলের মুখোমুখিতে সাগর পাড়ের দল জিতেছে ১৫ বার আর গঙ্গা পাড়ের দল জিতেছে মাত্র পাঁচ বার। শেষ পাঁচ বারের লড়াইয়ে এক বারও জিততে পারেনি নাইটরা। 

আবহাওয়া ওয়েবসাইট বলছে শুক্রবারও তেমনই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, যা বুধবারের ম্যাচও প্রায় ভেস্তে দিচ্ছিল। এই আশঙ্কা সত্যি হলে আবার বিপদের সামনে কেকেআর। কারণ, বৃষ্টিতে ম্যাচ বাতিল হলে, সুপার ওভারেও নিষ্পত্তি না করা গেলে, লিগ টেবলে মুম্বই নাইটদের উপরে থাকার জন্য তারাই ফাইনালে উঠে যাবে।

মুম্বইয়েরও ভোগান্তির পালা শুরু হল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়। রোহিত শর্মারা অনুশীলনে নামতেই শুরু হল সেই ঝড়-বৃষ্টি। ফলে রোহিতদের অনুশীলন না করেই ফিরে যেতে হল টিম হোটেলে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্স সন্ধ্যায় অনুশীলনের জন্য যখন মাঠে, তখন নাইটরা টিম হোটেলের সুইমিং পুলে। গম্ভীর তখন হোটেলের লবিতে দলের বোলিং কোচ লক্ষ্মীপতি বালাজির সঙ্গে গভীর আলোচনায় মগ্ন।

অধিনায়কের মতো তখন পুলে নামেননি উমেশ যাদবও। কলকাতার সাংবাদিকদের বললেন, ‘‘আগের দিন যে চাপের মুখেও আমরা জিতেছি, তার পর আমরাই এই ম্যাচে এগিয়ে।’’ কিন্তু প্রকৃতি যদি বাধ সাধে? বিশ্রামও তো বেশ কমই পেলেন। ‘‘বৃষ্টি তো আর আমাদের হাতে নয়। তা ছাড়া তিন দিনে দুটো ম্যাচ তো আইপিএলে খেলতেই হয়। অভ্যাস হয়ে গিয়েছে,’’ বলেন উমেশ।

গো নিউজ২৪/এনএফ